চলতি হাওয়া

অভিসারে অ্যাপস

রত্নাঙ্ক ভট্টাচার্য
কলকাতা, ১০ জানুয়ারি, ২০১৩

love apps

ছোট্ট বার্তায় জানাতে পারেন আপনার আকাক্ষা। ছবি- গ্রাফিক্স।

শক্তি চট্টোপাধ্যায় যখন লিখেছিলেন 'ভালবাসার বাঘ বেরোল বনে', তখনও কিন্তু বাঘটা হাতের মুঠোয় আসেনি! এতদিনে এসেছে। তা, ভয় কি, এ বাঘ নড়বে না। আটকে থাকবে শুধু আপনার আঁখির আঠায়। দেখা ফুরোলেই ভ্যানিশ। অভিসারের আকুতি যখন তীব্র, চারপাশে যখন উৎসুক চোখের পাহারা, আর যুগটা যখন প্রযুক্তির, তখন এ জাদু বাঘের সাহায্য তো নিতেই পারেন। ছোট্ট বার্তায় জানাতে পারেন আপনার আকাক্ষা। তবে থাকতে হবে অ্যানড্রয়েড স্মার্টফোন বা আইফোন আর ‘টাইগার টেক্সট ভ্যানিশিং' অ্যাপসটি। এখানে কোনও এসএমএস পড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই তা নষ্ট হয়ে যায়। ফোন তো ছাড়; থাকে না সার্ভারেও। তীব্রতার এই ছোঁওয়া শুধু অনুভব করবে সেই কাক্ষিত জনই, যাঁকে দেখা দেবে বাঘ। তাকে পাবেন গুগ্‌ল প্লে বা আইস্টোরে। শুধু মনে রাখবেন, অন্যজনের ফোনেও কিন্তু একই অ্যাপস থাকতে হবে।

এদিকে অর্থনীতির যে মন ভাল নেই! তাই মন ভাল নেই মানিব্যাগেরও। তাই তো ছোট্ট বার্তা, এসএমএস-ই ভরসা। ‘গো এসএমএস প্রো’, ‘হ্যান্ডসেন্ট এসএমএস’, ‘চম্প এসএমএস’-এর মতো অ্যাপস সেই কাজটি করা যাবে অনেক সহজে। সাজানো থাকবে সব বার্তা। খুঁজতে গিয়ে হয়রান হওয়ার ভয় নেই। জন্মদিন, প্রথম দেখা বা কোনও বিশেষ মুহূর্ত স্মরণের বার্তা আগেই লিখে, অ্যালার্ম দিয়ে রাখুন। ঠিক সময়ে তা তাঁর দরবারে হাজির হয়ে যাবে। শুধু বার্তাই নয়, এমএমএস-এ ধরা আছে না কি কোনও আবেগঘন মুহূর্ত? এক বার আবার ফিরে দেখাতে চান তাঁকে? তাও এরা সহজে করে দেবে। বার্তার সঙ্গে থাকবে আপনার হাতের ছোঁওয়া। আছে হাতের লেখায় বার্তা পাঠানোর সুবিধাও। সঙ্গে তা চ্যাট, ফেসবুক মেসেঞ্জারের মতোও কাজ করবে। ‘ফ্রি এসএমএস ইন্ডিয়া’ অ্যাপসটির দাবি, একে ব্যবহার করে মনের মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন অগুনতি এসএমএস, তাও আবার বিনা পয়সায়।

তা, আপনি কি বার্তা লিখতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলেন? কী লিখবেন ভেবে পান না? শুভেচ্ছা জানানোর ভাল কথা খুঁজে ফেরেন? তবে স্মার্টফোনে রাখতে পারেন, ‘এসএমএস কালেকশন’ অ্যাপসটি। হাসি থেকে হাহাকার- হৃদয়ের সব দোলাচলের ঢেউ এই অ্যাপসটির মাধ্যমে মনের মানুষটির কাছে পৌঁছে যাবে। বিশেষ বার্তাগুলি নিরাপদে সরিয়ে রাখতে চাইলে নিন ‘ভল্ট হাইড এসএমএস’ অ্যাপসটি। এতে ছবি বা ভিডিও-ও নিরাপদে সরিয়ে রাখার ব্যবস্থা আছে। আর বার্তা এলে? সে তো আপনি বারতা পেয়ে-ই ফোনে ফোনে। কিন্তু সেটি তাঁর বারতাই কি? তা হলে ‘ফানি এসএমএস’ অ্যাপসের রিংটোনের সাহায্যে তা ফোন না দেখেই বুঝতে পারবেন।

শুধু বার্তায় কি আর মন ভরে? কানের ভিতর দিয়ে সে কণ্ঠ মরমে প্রবেশ না করলে কি ভাল লাগে? তবে ফোন করতেই পারেন। কিন্তু তাঁর পাশে যদি যদি পাহারায় থাকে মন্থরারা? তবে দরকার পরে আপনার নম্বরটি গোপন রাখার। ফোনে রাখুন ‘হিডেন কল’ অ্যাপসটি। ফোন বাজবে, কিন্তু সে দেখতে পাবে না কোনও নম্বর। জানিয়ে রাখুন তাঁকেও, যাতে তিনি ঘাবড়ে না যান।

কিন্তু তাঁর সঙ্গে এক বার কথা বলে কি আশ মেটে? বার বার তাঁর কণ্ঠ শুনতে ইচ্ছে করে না কি? ইচ্ছে করে তো সেই নিবিড় আলাপচারিতার মুহূর্তগুলি বার বার ফিরে পেতে? আপনার স্মার্টফোনে রাখুন তবে ‘অটো কল রেকর্ডার’, ‘কল রেকর্ডার’-এর মতো অ্যাপস। যদি ফোনের মেমোরি এসডি কার্ড ভরে খানিক বাড়িয়ে নিতে পারেন, তবে ধরে রাখতে পারবেন অনেক ক্ষণের বার্তালাপ। যে কোনও সময়, যখন ইচ্ছে তাঁর কণ্ঠস্বর মিলবে এক ছোঁওয়াতেই।

কাঙ্ক্ষিতকে পেতে গেলে আবার মাঝেমধ্যে দরকার পরে অবাঞ্ছিতের অপসারণ। রয়েছে ‘কল ব্লকার’, ‘কল কন্ট্রোল’ বা ‘মিস্টার নম্বর’-এর মতো অ্যাপসও। যাঁর কণ্ঠ বা বার্তা পেতে ভাল লাগে, তাঁকে এর বাইরে রাখুন। বাকিরা বার্তা বা ফোনে আপনার অভিসারে বাধা দিতে পারবে না।

আর যাঁরে হৃদমাঝারে রাখতে চান, সে জন যদি প্রবাসী হন? তবে সুদূরের মিতার কণ্ঠস্বরও যে দুর্মূল্য হয়ে উঠবে। সেক্ষেত্রে কীভাবে পাবেন তাঁকে? অ্যাপস দুনিয়া রয়েছে ‘স্কাইপ’-এও। ডাউনলোড করে দু’জনে অ্যাকাউন্ট খুলে নিন। এ বার মনের কথা চলুক ‘ভিওপি’-তে। ইন্টারনেটেই চলবে কণ্ঠস্বর বিনিময়। ঘড়ির শাসন মানার দরকার নেই আর। ‘স্কাইপ’ ছাড়াও ‘ব্রিয়া’, ‘স্পেয়ার ফোন’-এর মতো অ্যাপস ব্যবহার করতে পারেন। ‘ফেসবুক’ও নিয়ে আসছে ‘ভিওপি’-র সুবিধা। আপাতত চালু হয়েছে কানাডায়। আপনার ডেক্সটপ বা ল্যাপটপে তার দেখা মেলার অপেক্ষায় থাকুন। অন্যান্য অ্যাপসগুলির দেখা পেয়ে যাবেন ‘গুগ্‌ল প্লে’-তেই।

জনপ্রিয়

সমস্ত ভিডিও

বর্ধমানে তরুণীর উপর অ্যাসিড হামলা

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 1 জন

কালো টাকা নিয়ে জেটলি যা বললেন

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 0 জন

দেব-শ্রাবন্তীর বিন্দাস প্রেম

শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস্

দেখেছেন 0 জন

তাপস পাল লোফার নন, ল' মেকার

এবিপি আনন্দ।

দেখেছেন 0 জন