বইপাড়া

সত্যজিৎ: জীবন আর শিল্প

Rating:
0

সম্পাদক - সুব্রত রুদ্র, প্রকাশক - প্রতিভাস, দাম - ৭০০.০০

আশিস পাঠক
কলকাতা, ২ মে ২০১২

প্রিভিউ
Satyajit Ray

জীবন আর শিল্প ছবি- নিজস্ব চিত্র।

দুই সিংহ৷ পরশুরামের গল্প৷ এ পর্যন্ত অবাক হওয়ার কিছু নেই৷ সাধারণ ভাবে দেখলে এ আর এমনকী, বাংলা সাহিত্যের কোনও একটি গল্পের মতোই ‘দুই সিংহ’৷ কিন্তু আসল মজাটা লুকিয়ে আছে অন্য জায়গায়৷ পত্রিকায় প্রথম প্রকাশের সময় এ গল্পের অলংকরণ করেছেন সত্যজিত্ রায়৷ বাংলা অলংকরণের ইতিহাসটাকে মাথায় রেখে দেখলে বোঝা যায়  এই অলংকরণ বাংলা সাহিত্যে অলংকরণের ইতিহাসে একটু ব্যতিক্রমী। ব্যতিক্রমী, কারণ পরশুরামের গল্পের অলংকরণ করছেন সত্যজিত্‌ রায়। কিন্তু কেন। কেউ বলবেন পরশুরামের গল্পের অলংকরণ সত্যজিত রায় করছেন এতে অবাক হওয়ারই বা কি আছে। পরশুরামের গল্প থেকে ছবি করেছেন সত্যজিত্‌। সকলেরই মনে পড়বে সে দুটি ছবির নাম---পরশপাথর আর কাপুরুষ ও মহাপুরুষ। ঠিকই। তবে পরশুরামের গল্পের সঙ্গে অলংকরণশিল্পী হিসেবে কার নাম প্রথমেই অদ্বিতীয় যুগলবন্দি হিসেবে মনে আসে বাংলা বইয়ের অলংকরণ নিয়ে কিছুটা খবর রাখেন এমন যে কেউ বলে দিতে পারবেন সেটা, যতীন্দ্রকুমার সেন। আর তাই ওই দুই সিংহমশায়কে প্রথম দেখায় চমকে যেতে পারেন অভিজ্ঞ জন, পরশুরামের একচ্ছত্র আলংকারিক তো ছিলেন যতীন সেন, যতীন্দ্রকুমার সেন৷ কথাটা ঠিকই তবু ব্যতিক্রম ছিল৷ যেমন ‘দুই সিংহ’৷ পরশুরামের আরও দুটি গল্পে অলংকরণ করেছিলেন তিনি৷ প্রকাশিত হয়েছিল আনন্দবাজার পত্রিকা আর ‘দেশ’ পত্রিকায়, পঞ্চাশের দশকে।

আশ্চর্য এই যে পঞ্চাশের দশক সেই সময় যখন সত্যজিত্কে ক্রমে অধিকার করে নিচ্ছে সিনেমা ছবি দেখছেন প্রচুর, তার মধ্যে অধিকাংশই বিদেশি ছবি। তার আগে শান্তিনিকেতনে কলাভবনে তিনি শিল্পশিক্ষা করেছেন। তাঁর বাবা সুকুমার রায় সম্পর্কে রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন আমার যুবক বন্ধু। সেই সম্পর্ক কাজ করে থাকবে হয়তো, সত্যজিত্‌কে পাঠানো হল শান্তিনিকেতনে ছবি আঁকা শেখার জন্য। সেখানে নন্দলাল বসু, বিনোদবিহারী মুখোপাধ্যায় প্রমুখের কাছে শিল্পশিক্ষা করলেন সত্যজিত্‌। বিনোদবিহারী মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে তিনি পরে ছবিও তৈরি করেছেন। সে ছবির নাম ইনার আই। সে ছবি এক দৃষ্টিহীন শিল্পীর প্রতি তাঁর ছাত্রের বিনম্র শ্রদ্ধা।

সত্যজিত্ রায় যে এমনই নানা মানিকের তিলে তিলে গড়া সেই কথাটা আরও এক বার মনে এল আজ, সত্যজিতের ৯১তম জন্মদিনে৷ সুব্রত রুদ্র সম্পাদিত বইটির পাতা ওল্টাতে ওল্টাতে৷ সত্যজিতের প্রতিভা যে কত দিকে কত ভিন্ন মাত্রায় প্রকাশিত হয়ে উঠেছিল তার এক গভীর পরিচয় এ বইয়ে সংকলিত শতাধিক লেখায়৷ ব্যক্তি সত্যজিত্, চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিত্, তাঁর প্রায় প্রতিটি ছবির নানা সমালোচনা, লেখক সত্যজিত্, শঙ্কু-ফেলুদা-পিকুর লেখক সত্যজিত্, গানের সত্যজিত্...নানা সত্যজিতের এই অনুপূঙ্খ পরিচয়ে রায় পরিবারের এই জিনিয়াসটি আরও গভীর করে ধরা দেন আমাদের কাছে৷

কিন্তু একটি কথা৷ বইটির পুনঃপ্রকাশ উপলক্ষে নতুন তথ্যে সাজানো উচিত ছিল বইটিকে৷ সত্যজিত্‌ রায় পরিচালিত গুটিদশেক চলচ্চিত্র ভিএইচএসে পাওয়ার যে পঞ্জি এ বইয়ে, জীবন তার থেকে এগিয়ে গিয়েছে অনেক৷ ভিএইচএস ফর্ম্যাটটিই এখন নিরুদ্দেশ৷ এখন সিডি-ডিভিডি-তে প্রায় সবক’টি সত্যজিত্‌-ছবি সুলভ। সুব্রত রুদ্র সম্পাদিত বইটির পরিশিষ্টে সমকালীন কয়েকটি পত্রপত্রিকা থেকে সংকলন করা হয়েছিল সত্যজিতের জীবনপঞ্জি, চলচ্চিত্রপঞ্জি, পুরস্কারপঞ্জি, রেকর্ডপঞ্জি এবং গ্রন্থপঞ্জি। এখানেও পঞ্জিগুলি অবিকল থেকে গেল৷ তার ফলে সত্যজিত্‌-ছবির ডিভিডিগুলি তালিকার বাইরে থেকে গেল, সিডি-রও কোনও হদিশ থাকিল না। অনুল্লেখিত থাকল সত্যজিতের ১৯৯৬-পরবর্তী বইগুলিও৷

নিরন্তর আপডেট না করে যেতে পারলে কিন্তু তথ্যের দাম থাকে না কোনও৷

শেষ হয়ে হইল না শেষ

সে যুগের কেচ্ছা একালের ইতিহাস

অন্যরা যা পড়ছেন

এই বিষয়ে আরও

জনপ্রিয়

সমস্ত ভিডিও

জিৎ-শুভশ্রীর নতুন খেলা

রিলায়েন্স এন্টারটেনমেন্ট রিজিওনাল

দেখেছেন 250 জন

হিজড়াদের স্বীকৃতি সুপ্রিম কোর্টের

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 89 জন

অর্জুন-আলিয়ার ব্রেক-আপ

টি-সিরিজ

দেখেছেন 155 জন

মোহনবাগানের কোচ হবেন মরগ্যান?

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 111 জন