বিনোদন

সাত দিন সুরজিৎ

সৌভিক চক্রবর্তী
কলকাতা, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১২

surjit banerjee

শ্রী শম্ভু মিত্র নাটকে সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি- নাট্যরঙ্গ।

পারিপার্শ্বিক ঘটনা যদি কোনও বক্তব্যের প্রমাণ হয়, তাহলে নিশ্চিত বলা যায়, শরৎকাল নয়- কালচারাল বং-র উৎসবের ঋতু শীত। বড়দিন পড়তেই শীত জাঁকিয়ে বসেছে সোয়েটারে-মাফলারে। তাকে আশ্চর্য সঙ্গত করছে একের পর এক উৎসবের হাতছানি নানাবিধ রঙের বিলাসে। চলচ্চিত্র উৎসব শেষ হতে না হতে রোজই অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিভিন্ন নাট্যমেলা। তারপর একত্রিশ সন্ধ্যায় গিটার ধরবেন কবীর সুমন। সেটা দেখে বেরোতেই রাতভোর নাট্য-স্বপ্ন-কল্প-এর নাটক। আর নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই শুরু হচ্ছে নতুন এক নাট্যমেলা। এই বিশেষ নাট্যমেলা এক অভিনেতাকে ঘিরে। অভিনেতার নাম সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়।
          
সাত দিন ধরে চলবে এই নাট্য উৎসব। শিরোনাম- 'সাত দিন সুরজিৎ'। নতুন বছরের প্রথম ছয় দিন সুরজিৎ-অভিনীত ছটি নাটক মঞ্চস্থ হবে এই উৎসবে। সপ্তম দিনে রয়েছে সুরজিৎ-কে ঘিরে আড্ডা। এই উৎসবের আয়োজন করেছে 'নাট্যরঙ্গ'।
          
শুধুমাত্র একজন অভিনেতাকে থিম করে এমন নাট্যমেলা এর আগেও দেখেছে কলকাতা। এর আগে দেবশঙ্কর হালদার এবং ব্রাত্য বসু-কে নিয়েও এই ধরনের উৎসব হয়েছে। ২০১০ সালের এপ্রিল মাসে দেবশঙ্করকে নিয়ে সাত দিনে দশটি নাটকের উৎসব হয়েছে। নাট্যকার-অভিনেতা ব্রাত্য বসুকে নিয়েও এমন উৎসবের আয়োজন করেছিল 'স্বপ্নসন্ধানী'। আর এই নতুন বছরে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। এখনকার অন্যান্য অভিনেতারা যখন নিজের দল ছাড়াও বিভিন্ন দলে অভিনয় বা নির্দেশনা করছেন, সেখানে সুরজিৎ মূলত অভিনয় করেন তাঁর দল 'নাট্যরঙ্গ'-তেই। তবে এই নাট্যমেলার ছ'টি নাটকের মধ্যে চারটি নাটক নাট্যরঙ্গের; বাকি দুটি অন্য দলের।
          
তো, এই 'সাত দিন সুরজিৎ'-এ কী কী নাটক থাকছে একটু দেখে নেওয়া যাক। ১, ২, ৩ জানুয়ারি পরপর মঞ্চস্থ হবে 'শ্রী শম্ভু মিত্র', 'বিনোদিনী কথা' এবং 'মিস্টার ভুলু'। এই তিনটি নাটক-ই মঞ্চস্থ হবে গিরিশ মঞ্চে। পরের তিনদিন ৪, ৫ ও ৬ জানুয়ারি থাকছে 'বিকেলে ভোরের সর্ষেফুল', 'আত্মকথা' এবং 'হ্যামলেট'। এই নাটক তিনটি অভিনীত হবে মধুসূদন মঞ্চে। এরপর ৭ জানুয়ারি বাংলা অকাদেমি হলে সুরজিতের সঙ্গে আড্ডা দেবেন এ সময়ের আরেক বিখ্যাত অভিনেতা-নির্দেশক কৌশিক সেন।
          
সুরজিতকে নিয়ে এই উদ্যোগ সম্পর্কে নাট্যরঙ্গের সভাপতি স্বপন সেনগুপ্ত জানালেন, নাট্যরঙ্গের ৪০ বছরের যাত্রাপথে খ্যাতিমান এবং পরিচিত হয়েছেন সুরজিৎ। শিল্প হিসেবে নাটককে এক অন্যতর উচ্চতায় পৌঁছে দিয়েছেন তিনি; তাই এই উদ্যোগ। বাংলার নাট্য ব্যক্তিত্বরাও সাদরে মেনে নিয়েছেন এই প্রয়াস। তাঁরা বলছেন এরকম নাট্য উৎসব আরও হওয়া প্রয়োজন। কারণ একজন প্রিয় অভিনেতাকে দর্শকরা একই সঙ্গে নানান চরিত্রে, নানান ভূমিকায় দেখতে চান।
           
সেই ৮৫ সালে অভিনেতা হিসেবে পথ চলা শুরু করেছিলেন সুরজিৎ। এই উৎসব কি পূর্ণতা আনল তাঁর যাত্রাপথে? সুরজিৎ জানেন না প্রশ্নটার উত্তর; কারণ অভিনেতার জীবনে পূর্ণতা বলে কিছু হয় না, পথ চলতেই তাঁর আনন্দ, হয়তো বা মোক্ষও!

অন্যরা যা পড়ছেন

এই বিষয়ে আরও

জনপ্রিয়

সমস্ত ভিডিও

মোদীতে নারাজ বিসমিল্লা খানের পরিবার

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 50 জন

পিৎজায় রক্তের দাগ

ইউটিভি মোশন পিকচার্স

দেখেছেন 167 জন