বড়চর্চা

উত্তমকুমার

সংহিতা বন্দ্যোপাধ্যায়
কলকাতা, ২৮ জুলাই ২০১২

ছবি- ফাইল চিত্র

সেটা ১৯৭৬ সাল। রাখী পূর্ণিমার দিন। আর ক’মাস পরেই বারোয় পড়ব। কিছু দিন আগে পরিচালক অপূর্ব মিত্র ছোটদের ছবি ‘অভি’-তে কাস্ট করেছেন। মনে খুব আনন্দ হলেও বাড়িতে আমার দাদা ও ভাই-বোনেদের তুলনায় আমার মুখশ্রী কম শার্প থাকায়, মানে নাক চাপা থাকায় অল্প দুঃখ আছে।
সে দিন প্রথম শুটিং। এন টি ওয়ান স্টুডিয়োতে শুটিং করে লিলুয়ায় বাড়ি ফিরেই আনন্দে লাফিয়ে মাকে বলেছিলেন, মা, তুমি খ্যাঁদা, বোঁচা বললে কী, আমি আজ বিউটি কনটেস্টে ফার্স্ট হয়েছি। আসলে হয়েছে কী, শুটিংয়ের ফাঁকে হঠাৎ সামনে তাকিয়ে দেখি অসাধারণ সুন্দর, প্রচণ্ড ব্যক্তিত্ববান উত্তমকুমার গাড়ি থেকে নেমে মেক-আপ রুমের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। কয়েক পলক মন্ত্রমুগ্ধের মতো চেয়ে থেকেই আমার দাদার হাত ধরে টান মারি। ইস্, অটোগ্রাফ খাতাটা সঙ্গে নেই যে! একটা ছোট ডায়েরি দাদার কাছে ছিল। সেটা নিয়ে ওঁর মেক-আপ রুমের দিকে পা বাড়াই। অনেক পাহারা, বাধা পেরিয়ে ওঁর সামনে গিয়ে দাঁড়াই। উনি কাছে ডাকলেন। বললাম, একটা অটোগ্রাফ চাই। উনি, বললেন, ‘তা এখানে কী করছ?’ বললাম, ‘অভি’তে অভিনয় করছি। উনি বললেন, ‘ও। বুড়িও তো ওতে পার্ট করছে, চেনো ওকে?’ বললাম, হ্যাঁ। মেক-আপ টেস্টের দিন আলাপ হয়েছে সুব্রতা কাকিমার সঙ্গে। কোন ক্লাসে, কোথায় পড়ি, আর কী কী শিখি, আরও অনেক টুকরো কথা বললেন। তার পর খাতায় লিখে দিলেন ‘সংহিতা, তুমি সুন্দর আর আমি? সুন্দরের পুজারী। শ্রী উত্তমকুমার, রাখী ও ঝুলন পূর্ণিমা।’ তার পরেও কিছু কথা বলেছিলেন। শ্যামল মিত্রকে বলেছিলেন মেয়েটি ভারী মিষ্টি। কিন্তু আমার কোনও কথাই কানে যাচ্ছিল না। কিছুক্ষণ হুঁ-হাঁ করে দে ছুট। কখন শুটিং শেষ হবে, কখন মাকে দেখাব!

 

আনন্দবাজার পত্রিকা

অন্যরা যা পড়ছেন

এই বিষয়ে আরও

জনপ্রিয়

সমস্ত ভিডিও

হক কথা বললেন অনুব্রত

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 253 জন

ইডি, কমিশনকে জ্ঞান দিলেন পার্থবাবু

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 169 জন

লাভপুর বিস্ফোরণে দায়ী ফব না তৃণমূল?

এবিপি আনন্দ

দেখেছেন 165 জন