শিল্প-সংস্কৃতি

পুস্তক পরিচয়

পুরুষত্ব নয়, মনুষ্যত্বই তার অন্বিষ্ট


কলকাতা, ৫ জানুয়ারি ২০১৩

book cover

আজকাল পড়ুয়াদের মধ্যে ফিরে দেখার এক অভ্যেস জন্মেছে। ছবি-

বছর কয়েক আগে মেয়েলি সংলাপ বেরিয়েছিল সুতপা ভট্টাচার্যের, ‘তারই আদলে মেয়েলি আলাপ (পুস্তক বিপণি, ১৪০.০০) গড়ে তোলা’, লিখছেন তিনি, ‘ঋতদীপা নামে একটি কাল্পনিক চরিত্রের কাল্পনিক ডায়ারির মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন প্রবন্ধগুলি একটি সূত্রে গ্রথিত হয়েছে’। এই বইয়ের একটি রচনা ‘ধর্ষণ— একটি অনন্য অপরাধ’, তাতে স্বাতী ভট্টাচার্য সম্পাদিত আ ইউনিক ক্রাইম: আন্ডারস্ট্যান্ডিং রেপ ইন ইন্ডিয়া বইটি আলোচনার সূত্রে সুতপার মন্তব্য: ‘এ সভ্যতাকে মানবিক হতে হলে নারীকে যেমন তার সমাজনির্দিষ্ট নারীনির্মিতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে, পুরুষকেও তেমনি সমাজনির্দিষ্ট পৌরুষের ধ্বজা ভাঙতে হবে, মনে রাখতে হবে, পুরুষত্ব নয়, মনুষ্যত্বই তার অন্বিষ্ট, শুধুমাত্র জৈবিক ক্রিয়াকর্মের কর্তা হওয়া মানেই বিষয়ী হওয়া নয়।’ আবার ‘আশাপূর্ণা দেবীর উপন্যাসের একটি মেয়েলি পাঠ’ প্রসঙ্গে সুতপা লিখছেন ‘গার্হস্থ্য বাস্তবতার কথক মহিলা সাহিত্যিকরাও তাই সচরাচর পুরুষ পাঠকদের কাছে তেমন আমল পান না। মহাশ্বেতা দেবী যেহেতু বহির্পরিসরকে অনেকাংশেই তাঁর রচনার অন্তর্ভুক্ত করেন, তাই পুরুষ সমাজের কেউ কেউ মনে করেন ওঁকে নারীলেখিকা বলাই যায় না। আশাপূর্ণা দেবীকে এঁরা অন্দরমহলের লেখিকা বলে অপাংক্তেয় করেই রাখতে চেয়েছিলেন,... তা সত্ত্বেও তাঁকে পুরস্কৃত করতে বাধ্য হয়েছে পুরুষের-প্রধান এ প্রতিষ্ঠানগুলি।’ এ ছাড়াও সুতপার আরও রচনা নবনীতা দেবসেন অঞ্জলি দাশের কবিতা থেকে সেলিনা হোসেন তৃপ্তি সান্ত্রার গল্প অবধি নানান বিষয়ে।
আজকাল পড়ুয়াদের মধ্যে ফিরে দেখার এক অভ্যেস জন্মেছে। জ্যোতির্ময়ী, স্বর্ণকুমারী, রোকেয়া, আশালতা সিংহ, শৈলবালা ঘোষজায়া, সীতা দেবী, সাবিত্রী রায়, সুলেখা সান্যাল, অনিন্দিতা দেবী, সরলা দেবী চৌধুরাণী... এঁদের রচনা আজ অনেকটাই হাতের নাগালে। সুদক্ষিণা ঘোষ তাই তাঁর নতুন বই মেয়েদের কথা মেয়েদের কলমে-র (মৌহারি, ২০০.০০) অবতরণিকা-য় লিখেছেন ‘এসব দেখে আজকের পাঠক হিসেবে যেন আশ্বাস জন্মায় একটা, মনে হয়, পুরোনো কালের দিকে ফিরে তাকানোর, নিজের শিকড় চিনে নেওয়ার একটা আগ্রহ তবে নতুন করে জেগেছে আমাদের, বাঙালি পাঠকের।’ সুদক্ষিণার কলমে এমনই নারী-লেখকদের বিষয়ে আলোচনা। বইটির আর একটি পর্বেও মেয়েদের কলম ঘিরেই আলোচনা, কিন্তু কোনও একক কলম নয়, সমকালীন বহু কলমের ধারা নিয়ে।
বস্তুবাদী ইতিহাস চর্চার উপাদান হিসেবে আখ্যান ও উপাখ্যানের ভূমিকা কতটা সম্ভাবনাময় হয়ে উঠতে পারে, তা দীর্ঘ দিনই বিতর্কের বিষয়। হিস্টরি ইন লিটারেচার লিটারেচার অ্যাজ হিস্টরি/ দ্য ইস্যু রিভিজিটেড (সম্পা: প্রিয়দর্শী চক্রবর্তী। লেভান্ত বুকস ও কুলটি কলেজ, ৫৯৫.০০) সংকলনে ইতিহাস ও সাহিত্যের পারস্পরিক সম্পর্কের এই ধূসর পরিসরটিই মুখ্য আলোচ্য। যেমন গিরিশ কারনাডের ‘তুঘলক’, শশী থারুরের ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান নভেল’, সাদাত হাসান মান্টোর গল্প, অমিতাভ ঘোষের ‘হাংরি টাইড’, মহাশ্বেতা দেবীর গল্প-উপন্যাস নিয়ে আলোচনা আছে ‘হিস্টরি: সিচুয়েটেড ইন লিটারেচার’ বিভাগে।
দীপেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় কবিতার আলোচনায় সব সময়ই নতুন দিকচিহ্ন ছুঁতে চান। যেমন জীবনানন্দের কোনও নির্দিষ্ট কবিতাকে ঘিরে বিশিষ্ট কবিদের মতকে প্রথমে গ্রাহ্যতায় এনে তারপর নিজের সিদ্ধান্তে আসেন। তাঁর মনস্ক গভীর পাঠ অনায়াসে খুলে দেয় কবিতার জটিল দুরূহ আগল। জীবনানন্দ থেকে জয় গোস্বামী প্রধান বাঙালি কবিদের নিয়ে তাঁর রবীন্দ্রোত্তর আলোকবৃত্তের তেরোজন কবি (এবং মুশায়েরা, ৪০০.০০) বয়ে আনে কবিতার নিহিত বোধ, সাহিত্যের স্বাদ।

আনন্দবাজার পত্রিকা

অন্যরা যা পড়ছেন

এই বিষয়ে আরও

জনপ্রিয়

সমস্ত ভিডিও