দৈনিক আনন্দবার্তা

গয়নার হাট সালংকারা

সময় ফুরিয়ে আসে, কিন্তু সম্পর্কের সূত্র থেকে যায়| আর এই সূত্র গাঁথা থাকে গয়নার মাদকতায়| আজকের নারীর গয়না বিলাসের শেষ কথা সালংকারা| প্রাচীন ও আধুনিক ডিজাইনের বাহারি চমকে নারীর জীবনের আত্মবিশ্বাস জাগিয়ে তুলতে আপনাকে আসতেই হবে সালংকারার দরবারে| হালকা সোনার গয়নার ঝলকানি থেকে হীরের দ্যুতিময়তা, প্ল্যাটিনামের ভাব বিনিময় থেকে রূপোর রাশভারী গয়নার উজ্জ্বল উপস্থিতি আপনাকে দেবে ছন্দের আশ্বাস| নামজাদা সমস্ত গয়নার ব্র্যান্ড হাজির থাকবে এই গয়না হাটে| ব্যস্ততার বাজারে, দ্রুত ফুরিয়ে যাওয়া সময়ে দোকান ঘুরে গয়না কেনার দিন শেষ| নাকছাবি থেকে কানঝুমকো, প্রিয়জনের হঠাৎ খুশির ঝলকানি, আপনার দোরগোরায়| আসুন সালংকারায়| সোনার গয়না ভারতীয় নারীর সৌন্দর্যের প্রতীক। নারীদের কাছে সোনা সব আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু| এশিয়ার মধ্যে ভারত অন্যতম বড় সোনার বাণিজ্যকেন্দ্র এবং পশ্চিমবঙ্গ তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য। বাঙালি নারীর সৌন্দর্য আর লাবণ্য সোনার গয়না ছাড়া সম্পূর্ণতা পায় না। কোন বাঙালি কনে সোনার গয়নার সুসজ্জা ছাড়া বিয়ের কথা ভাবতেই পারে না। সেই জন্য এই অঞ্চলের সোনার কারিগরেরা নতুন ধরনের মোহময়ী গয়না তৈরিতে পারদর্শী। তাদের বিভিন্ন প্রকারের চোখ ধাঁধাঁনো নকশা ক্রেতাদের সবসময় আকর্ষণ করে। তাদের খাঁটি ২২ক্যারেট-এর গয়না শুধুমাত্র দেশে নয় বিদেশেও সুখ্যাতি লাভ করেছে।

বাংলার কারিগরদের তৈরি গয়নাগুলির কারুকার্য অতুলনীয় যা সারা বিশ্বে জনপ্রিয়। সোনা মহার্ঘ, তবে এর দাম ওঠা নামা করলেও তা কখনও মূল্যহীন হয়ে যায় না। সোনা আগেও অঙ্গসজ্জা এবং আড়ম্বরের অন্যতম মূল বস্তু ছিল, এখনও আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে আশা করা যায়।

ইতিহাসের দিকে নজর ঘোরালেও দেখা যাবে যে গয়নার মধ্যে সোনার গয়না ছিল সব থেকে প্রচলিত এবং বহু ব্যবহৃত একটি ধাতু। ভারতবর্ষে মোঘলদের সময়ে সোনার গয়না ছিল রানীদের কাছে রাজাদের ভালবাসা প্রদর্শনের অন্যতম উপহার। যার ধারা আজও বর্তমান|

তবে সময় বদলানোর সঙ্গে সঙ্গে খাঁটি সোনা পাওয়া আর সহজ নয়। বাজার নকল জিনিষে ভরে গেছে,তাই এখন ক্রেতাকে সজাগ থাকতে হবে সোনার গয়না কেনার সময়। তবে একটু নজর খোলা রেখে ঠিক দোকানে গিয়ে পৌঁছতে পারলেই আপনি হাতের মুঠোয় পেতে পারেন অসাধারণ গয়নার সম্ভার। আর আপনি কলকাতায় থাকলে তো আপনার চিন্তাই নেই! কারণ কলকাতায় বেশ কয়েকটি সোনার গয়নার দোকান আছে, যেখানকার গয়নার গুণমানের উপর চোখ বন্ধ করে ভরসা করা যায়। এরা বিখ্যাত তাদের কারুকার্যের সম্ভার এবং গুণগত মানের জন্য। এগুলির মধ্যে পি সি চন্দ্র অ্যান্ড সন্স, এম পি জুয়েলার্স, সেনকো জুয়েলারি মিউজিয়াম, বেঙ্গল জুয়েলারি, অঞ্জলি জুয়েলার্স, বি সি সেন জুয়েলার্স | সোনা মানুষের এক অনন্য সম্পদ যা আপদে বিপদে বিভিন্ন সময় কাজে লাগে। তাই আশা করব আপনারা আপনাদের পছন্দের জায়গা থেকে খাঁটি সোনা কিনবেন। এবং কেনার সময় অবশ্যই ট্রেডমার্ক দেখে কিনবেন।

আপনার বিজ্ঞাপন এখানে

আপনার বিজ্ঞাপন এখানে

আপনার বিজ্ঞাপন এখানে

আপনার বিজ্ঞাপন এখানে

banner